1. admin@dainiktrinamoolsangbad.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হলেন ভাণ্ডারিয়ার “জামিল! পিরোজপুর জেলা পরিষদের নবাগত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহন। আউয়াল’ সভাপতি -হাকিম’ সম্পাদক” পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলণ। ৭ বছর পর হতে যাচ্ছে পিরোজপুর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। ভান্ডারিয়ায় বিএনপির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত। ছাত্রদল নেতাদের উপর হামলার প্রতিবাদে পিরোজপুরে বিক্ষোভ মিছিল। পিরোজপুরে বঙ্গমাতা সেতুর উপর গাড়ি দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের স্ত্রী’র মৃত্যু, আহত সাংবাদিক বাবু। নাজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত। ভান্ডারিয়া যুবদলের নতুন কমিটি বাতিলে দাবিতে “বিক্ষোভ। পিরোজপুরে যুবলীগ নেতা ফয়সাল মাহাবুব শুভ’র ১ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত।

প্যারাসিটামল ওষুধ খেয়ে মৃত্যু ১০৪ শিশুর পরিবারকে ১৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণের নির্দেশ “হাইকোর্টের।

এইচ এম জুয়েল
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০২২
  • ১৭৮ বার পঠিত

প্যারাসিটামল ওষুধ খেয়ে ১০৪ মৃত্যু

শিশুর পরিবারকে ১৫ লক্ষ টাকা করে

ক্ষতিপূরণের নির্দেশ “হাইকোর্টের।

তৃণমূল প্রতিনিধিঃ- ভেজাল প্যারাসিটামল সেবনে শিশুমৃত্যুর ঘটনায় মোট ১০৪ শিশুর প্রত্যেকের পরিবারকে ১৫ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরকে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ১০৪ শিশু মৃত্যুর জন্য দায়ী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, কোম্পানির কাছ থেকে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর উক্ত অর্থ আদায় করবে।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। অপরপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. আসাদুজ্জামান।

সাংবাদিকদের অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, ১৯৯১ সালে ভেজাল প্যারাসিটাল সিরাপ সেবন করে ৭৬ শিশু এবং ২০০৯ সালে রিড ফার্মার প্যারাসিটামল সেবন করে ২৮ শিশু মারা যায়। এ ঘটনায় ২০১০ সালে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করে মানবাধিবার সংগঠন এইচআরপিবি জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট দায়ের করে। রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। রুলের দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ রায় দিয়েছেন। রায়ে ভেজাল প্যারাসিটামল সেবনে শিশুমৃত্যুর ঘটনায় মোট ১০৪ শিশুর প্রত্যেকের পরিবারকে ১৫ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এছাড়া ভেজাল ওষুধ নিয়ন্ত্রণে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের নিষ্ক্রিয়তা অবৈধ ঘোষণা, ভেজাল ওষুধের অপরাধের ক্ষেত্রে বিশেষ ক্ষমতা আইন অনুসারে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছেন। পাশাপাশি আদালত বলেছেন, ভেজাল ওষুধের কারণে শিশু মৃত্যুর দায় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর এড়াতে পারে না।

এদিকে রিড ফার্মার ভেজাল প্যারাসিটামল সিরাপ সেবন করে ২৮ শিশু মারা যাওয়ার ঘটনায় ওষুধ কোম্পানিটির মালিকসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করা হয়। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক মো. শফিকুল ইসলাম ঢাকার ড্রাগ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার বিচার শেষে ২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর পাঁচ জনকে খালাস দেন বিচারিক আদালত।

ওই রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারিক আদালত বলেছিলেন, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর মামলাটি করার ক্ষেত্রে ১৯৮০ সালের ড্রাগ আইন যথাযথভাবে অনুসরণ করেননি। মামলায় যথাযথভাবে আলামত জব্দ করা, তা রাসায়নিক পরীক্ষাগারে পাঠানো এবং রাসায়নিক পরীক্ষার প্রতিবেদন আসামিদের দেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে ড্রাগ আইনের ২৩, ২৫ ধারা প্রতিপালন করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে সাবেক ওষুধ তত্ত্বাবধায়ক মো. শফিকুল ইসলাম ও আলতাফ হোসেন চরম অবহেলা, অযোগ্যতা ও অদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২০ দৈনিক তৃণমূল সংবাদ
Theme Customized BY Theme Park BD