1. admin@dainiktrinamoolsangbad.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

পিরোজপুরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তিক টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের “অগ্রগতি পর্যায়” ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত

এইচ এম জুয়েল
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ১০৬ বার পঠিত

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর

টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের

“অগ্রগতি পর্যায়” ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত

এইচ এম জুয়েল:– আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) পিরোজপুর এলজিইডি সভা কক্ষে জেলা পর্যায় ২৮টি পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি সভাপতি/ সম্পাদকদের নিয়ে অগ্রগতি ও পর্যালোচনা বিষয়ক এক ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সাভার চলাকালীন টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে উপস্থিত সদস্যদের মাঝে প্রকল্পের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী স.ম আব্দুস সালাম।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিরোজপুর জেলার এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুস সাত্তার হাওলাদার, বিশেষ অতিথি জেলা সমবায় কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আরিফুল ইসলাম, টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের সোসিওলজিষ্ট স্বরাজ সাহা, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ সোহেল রানা, উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবুল কালাম আযাদ সহ বিভিন্ন উপজেলার কমিউনিটি অর্গানাইজার (সিও) ও সমবায় সমিতির সভাপতি/সম্পাদক বৃন্দ।

উল্লেখ্য: স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তিক টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের পিরোজপুর জেলা ২৮টি পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির অগ্রগতি ও সদস্যদের শেয়ার সঞ্চয় অ্যানুয়াল মিটিং (এজিএম) নিয়মিত অডিট সমিতির সদস্য বৃদ্ধিসহ এলাকার আর্থসামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে ও বিভিন্ন দিক নিয়ে পর্যালোচনা বিষয়ক এক ত্রৈমাসিক  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুস সাত্তার  আলোচনায় বক্তব্যে বলেন সমিতির আওতাধীন মৎস্য ও হাঁস-মুরগি ও গবাদি পশু পালন এর উপর তাগিদ দিয়ে বলেন আমাদের পিরোজপুর জেলায় কৃতি সন্তান বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম মহোদয় এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করে যাচ্ছে তারই ধারাবাহিকতায় সমিতির সদস্যরা মৎস্য ও হাঁস মুরগি গবাদি পশু খামার তৈরি করলে আমরা মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে সুপারিশ করব যাতে আমাদের সমিতির সদস্যরা আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটিয়ে আত্মনির্ভরশীল হয়ে উঠতে পারেন। সরকার পানির ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি তৈরি করে ছিল পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী একত্রিত হয়ে এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবে।

জেলা সমবায় কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি যেহেতু সমবায় অধিদপ্তর কর্তৃক নিবন্ধিত তাই সমিতির বাৎসরিক অডিট গুলি সমবায় অধিদপ্তর করে থাকেন। সেখানে উপজেলা ও জেলার কোন কর্মকর্তা অডিট রিপোর্ট করতে গিয়ে আপনাদের হয়রানির বা অসহযোগীতা করলে আমাকে অবহিত করবেন আমি তার সুব্যবস্থা গ্রহণ করিব।

টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের  সোসিওলজিষ্ট স্বরাজ সাহা বলেন আমি আপনাদের সহযোগিতায় সর্বদা প্রস্তুত। পিছিয়ে পড়া সমিতিগুলো সামনের সারিতে চলে আসতে যে দাপ্তরিক সাপোর্ট দরকার তা আমি আপনাদের করে দেবো এবং আমি অনুরোধ করব আপনারা সমিতির সদস্য ও শেয়ার সঞ্চয় বৃদ্ধি করে গ্রেডিং পদ্ধতির মাধ্যমে প্রথম সারির কাতারে চলে আসবে বলে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

জেলার বিভিন্ন সমিতি থেকে সবাই উপস্থিত সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে থেকে বক্তব্য রাখেন ভান্ডারিয়া উপজেলার হরিনপালা পাবসসের সম্পাদক মাহবুবুল আলম, গৌরীপুর পাবসসের সভাপতি মোঃ শাহাদাত হোসেন, সেক্রেটারি এইচ এম জুয়েল, মঠবাড়িয়ার উপজেলার সাপলেজা পাবসসের সভাপতি মাহবুব হোসেন সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

সদস্যরা বক্তব্যের মাধ্যমে কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি তুলেন। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ সমিতি পরিচালনা করে আসছি কিন্তু এলাকার উন্নয়নের জন্য সরকারি অনুদান কেউ একবার কেউ দুবার পেয়েছি। স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের অন্যান্য প্রকল্প সেক্টরের মত এই ক্ষুদ্রাকার পানিসম্পদ সেক্টর টা যেন সমানতালে উন্নয়নমূলক কাজ করে তার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানান।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২০ দৈনিক তৃণমূল সংবাদ
Theme Customized BY Theme Park BD