1. admin@dainiktrinamoolsangbad.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৭:২৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
হিজলায় বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী। হিজলায় বিদ্যুৎ সাব জোনাল অফিস স্থানান্তর না করার দাবীতে মানববন্ধন। দেশে ৭৯ শতাংশ পথশিশু যৌন নিপীড়নের শিকার “আজ পথশিশু দিবস। লন্ডনের ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির কৃতিত্ব শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক। দূর্গাপুজা উপলক্ষে ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়ে প্রশংসিত কাউখালীর “ভাইস চেয়ারম্যান। পিরোজপুরে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া শারদ উপহার বিতরণ করেন -মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। হিজলা প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের নিয়ে জরুরী সভা। সন্ত্রাসীদের কোপে মঠবাড়িয়ার “জাপা নেতার পা বিচ্ছিন্ন। সাগরে ঘূর্ণিঝড়ে পড়ে ভারতে আশ্রয় নেওয়া জেলে পরিবারকে অনুদানের চেক দিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক। পিরোজপুরে সাংবাদিকদের সাথে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের মতবিনিময়।

সরিষায় ‘আশার আলো’

মোঃ ওসমান ডাকুয়াঃ
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৬ জানুয়ারি, ২০২১
  • ২০৪ বার পঠিত

চাষের সময় আর খরচ দুটোই কম হওয়ায় কৃষকের কাছে বেশ জনপ্রিয় সরিষা চাষ। গত কয়েক বছরে নতুন নতুন জাত উদ্ভাবনের ফলে শস্যটির ফলনও আগের চেয়ে বেড়েছে। এ কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে দিনদিন বাড়ছে সরিষার চাষ। বাজারে দামও ভালো থাকায় সরিষায় আশার আলো দেখছেন কৃষকরা।

অন্যদিকে, ভোজ্যতেলের আমদানি নির্ভরতা কমাতে সরিষাকে বিকল্প হিসেবে দেখছে সরকার। এ জন্য ফসলটির উৎপাদন বাড়াতে নেয়া হয়েছে বড় প্রকল্প। ফসলের শ্রেণিবিন্যাসে পরিবর্তন এনে গতিশীল করা হচ্ছে সরিষার চাষ। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে সরিষার উৎপাদন বাড়িয়ে দেশে ভোজ্যতেলের আমদানি নির্ভরতা এক-তৃতীয়াংশ কমিয়ে আনার লক্ষ্য নেয়া হয়েছে।

কৃষি বিভাগ বলছে, প্রচলিত দেশি সরিষার চেয়ে সরিষার জাতগুলোর ফলন বেশি। এ কারণে এতে চাষিরাও আগ্রহী হচ্ছেন। অনেকেই আমন ধান সংগ্রহের পর জমি ফেলে না রেখে সরিষা চাষ করছেন। এরপর আবার বোরো ধান রোপণ করতে পারছেন। এতে একই জমিতে বছরে তিনবার ফসল উৎপাদন হচ্ছে।

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) কয়েক বছরে বেশ কিছু নতুন জাত উদ্ভাবন করেছে। সংস্থাটির তথ্যমতে, বিনার সরিষা হেক্টর প্রতি গড় ফলন ১ দশমিক ৮ টন। জীবনকাল মাত্র ৮৭ দিন। বাড়তি ফলন ও কম সময়ের কারণে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা।

সারাদেশে সরিষা চাষ বাড়ার আরেকটি কারণ। জমির পাশেই বাক্স বসিয়ে মৌচাষ হচ্ছে দেশের কয়েকটি এলাকায়। মৌমাছির মাধ্যমে সরিষা ফুলের পরাগায়নে সহায়তা হচ্ছে। এতে মধু চাষের পাশাপাশি সরিষার উৎপাদনও বাড়ছে। সরিষা ও মৌচাষি উভয়েই লাভবান হচ্ছেন।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২০ দৈনিক তৃণমূল সংবাদ
Theme Customized BY Theme Park BD